আমার ডেভেলপ করা প্রজেক্টগুলোর ভার্সন নাম্বারিং

ভূমিকা এবং প্রজেক্টের প্রধান ভার্সন নাম্বার

আমি এখন অ্যাক্টিভলি ৩টা প্রজেক্ট ডেভেলপ করি: #বুয়েটিয়ান.কম, #রোকেয়া কিবোর্ড লেআউট, #মিথিক-অ্যাঞ্জেল.কম। এই কোডগুলোর একেকটার ভার্সন নাম্বার একেকরকম হলেও সবগুলোরই ভার্সন নাম্বার (প্রধান ভার্সন নং) ৪ দিয়ে শুরু। ৪ দিয়ে শুরুর হবার কারণ এর

আগের ভার্সনগুলো ছিলো এরকম:

০ = আইডিয়া
১ = পেপার প্রোটোটাইপ ও রিলেটেড প্রডাক্ট নিয়ে পড়াশোনা
২ = প্রথম ভার্সন
৩ = আলফা এবং বেটা ভার্সন, টেস্টিং এবং বাগ ফিক্সিং

বর্তমান এবং ভবিষ্যতের ভার্সন নাম্বার:

৪ = বর্তমানে যেকোন প্রোজেক্টে ব্যবহার করার মতন রিলিজ, কোডার আমি একাই। নতুন ফিচার দেয়া এবং বাগ ফিক্স করার দায়িত্ব আমার একার।
৫ = ভবিষ্যৎ ভার্সন। একাধিক কোডার যদি কখনো কাজ করা শুরু করেন তাহলে সেই ভার্সনগুলো ৫ দিয়ে শুরু হবে।
৬ = একাধিক ভাষায় প্রজেক্টগুলো রিলিজ হলে তখনকার ভার্সনগুলো ৬ দিয়ে হবে
প্রধান ভার্সন নং এর পরে এরপরের নাম্বারগুলো প্রজেক্ট স্পেসিফিক। এই মুহুর্তে সেগুলোর কোনটার নাম্বার কত এবং সেটার বর্ণনা:


প্রধান ভার্সন নাম্বারের পরবর্তী সংখ্যাসমূহ:

প্রধান ভার্সন নং এর পরে এরপরের নাম্বারগুলো প্রজেক্ট স্পেসিফিক। এই মুহুর্তে সেগুলোর কোনটার নাম্বার কত এবং সেটার বর্ণনা নিচে

    1. রোকেয়া লেআউট: এটার বর্তমান ভার্সন নাম্বার = ৪.৪.৭৩। এখানে দ্বিতীয় ৪টা বুঝাবে এইটা কোন ফিচার দিচ্ছে (৪=জাভাস্ক্রিপ্ট) এবং ৭৩=কততম রিলিজ সেই ফিচারে। ৪.৪.৭৩ একটা ফিচার রিলিজ ভার্সন তাই ভবিষ্যতের কোর জাভাস্ক্রিপ্ট ডেভেলপমেন্ট এইটা দিয়েই হবে। কিছুদিন পরে neo-keyboard দিয়ে নেটিভ ক্লায়েন্ট তৈরীর কাজ করবো, তখন দ্বিতীয় ৪টা ৫ হয়ে যাবে। তারপরে অ্যান্ড্রয়েডের জন্যে swipe বানালে সেটা ৬ হয়ে যাবে। প্রতিটা ফিচারের রিলিজ ভার্সন শুরু হবে ০ থেকে
    2. বুয়েটিয়ান.কম: এটার  = Buetian 4.dream। কারণ এই সাইটটা আমার খুব প্রিয় সাইট, এই লেআউটট আমার পছন্দের লেআউট এবং এইখানে আমার অনেক স্বপ্ন এক করে রাখতে পেরেছি। বর্তমান ভার্সন নাম্বার = 4.0.7, এখানে ০ = বর্তমান সাইট-লেআউটটাকে বুঝায়, ৭ = হাইবারনেশন-কাজ-হাইবারনেশন-কাজ এই চক্রের ৭ম ধাপে আছি (মানে কাজ থেকে দীর্ঘদিন বিরতি দিয়ে আবার যখন ফিরবো এই বর্তমান সাইট-লেআউটেই কাজ করার জন্যে তখন ভার্সন নাম্বার ৪.০.৮.X হয়ে যাবে)
    3. মিথিকঅ্যাঞ্জেল.কম: এইটার বর্তমান ভার্সন নাম্বার: 4.mythicangel.2010.X, এখানে 2010টা হলো প্যারেন্ট থিমটার আইডি, যতবার নতুন প্যারেন্ট কোন থিমে যাওয়া হবে অতবার এইটা বদলাবে। mythicangel অংশের অর্থ হলো কোন ওয়েবসাইটে এই চাইল্ড থিমটা ব্যবহার করছি এবং X হলো সেই চাইল্ড থিমটার ফিচারগুলোর ভার্সন।
        1. X = 1 => প্রথম রিলিজ
        2. X = 2 => দ্বিতীয় রিলিজ
        3. X = 3 => ul/ol ট্যাগগুলোকে 2010 থেকেই নেয়া হবে
    4. L2P-Hello-Bookmark: L2P দিয়ে কিভাবে স্যাম্পল অ্যাপ্লিকেশন ডেভেলপ করতে হয় সেটার একটা অ্যাপ্লিকেশন। বর্তমান ভার্সন: ৪.০.০.০ (৪ = আগের মতই, ০ = সপ্তাহ, ০ = দিন, ০ = দিনের বিল্ড সংখ্যা)
    5. থিসিস: বর্তমান ভার্সন: ১.৩.০.১। এটার জন্যে আবার নতুন একটা ফর্ম্যাট অ্যাপ্লাই করছি:
        1. Go from N.x to N+1.0 when compatibility breaks with the new release – New release – যেমন এপিআই ভার্সন v1 থেকে v2 তে চলে যাওয়া
        2. Go from N.M to N.M+1 when new features are added which do not break compatibility – Minor release – কোড রিফ্যাক্টরিং / অ্যাটাচমেন্ট ডাউনলোডিং
        3. Go from N.M.B to N.M.B+1 when bug fixes are added by a new Build – মোটামুটি ফিক্স একটা সংখ্যা। কোন মেজর+মাইনর ভার্সনে কোন চেঞ্জ করা / বাগ ফিক্স চাইলে তখন এইটা আপডেটেড হবে।
        4. Go from N.M.X.R to N.M.X.R+1 with every new Revision – কোড ডেভেলপ করতে থাকলে সবসময় বাড়তেই থাকবে এই সংখ্যাটা প্রতিবার Deploy দিয়ে সার্ভারে চেকইন করার সময়

সামনে ফ্লিকার, অ্যান্ড্রয়েড এবং হাডুপ দিয়ে কাজ শুরু করবো, তখনও এইরকম ভার্সন নাম্বার মেইনটেইন করার ইচ্ছা আছে 🙂

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *